মুন্সীগঞ্জ সদরে মিরকাদিমে বৃদ্ধা মহিলাকে মেরে দাত ফেলে দিয়েছে মাদক ব্যবসায়ী

মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধিঃ মুন্সীগঞ্জ সদর উপজেলার মিরকাদিম পৌর সভার নৈয়দিঘীর পাথর এলাকায় জামা কাপর শুকানো কে কেন্দ্র করে এক মাদক ব্যবসায়ী মোঃ ইউসুফ (৩০) ইউসুফের স্ত্রী জুলেখা বেগম। গত মঙ্গলবার সকাল ৮টার দিকে নৈয়দিঘির পাথর এলাকার হাজেরা বেগমকে (৬০) বৃদ্ধা মহিলাকে এলোপাতারে কিল গুশি দিয়ে দুটি দাতঁ ফেলে দেয় ও ঠোটে ফাটিয়ে রক্তাক্ত করেছে। বৃদ্ধার মহিলার চিৎকার শুনে এলাকার মানুষ এসে বৃদ্ধাকে উদ্ধার করে। মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যায়, সদর হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা করে। হাতিমাড়া ফাড়িতে সাধারন ডাইরী করেন, বৃদ্ধা মহিলার ভাতিজা বদুরুল মিয়া বাদী হয়ে। বৃদ্ধা মহিলা হাজেরা বেগমের মেয়ে শাহানাজ বেগম জানান, সকালে আমার মা কাপর শুকাতে গেলে হাজী মোখলেছ মিয়া বাড়িতে, সেই বাড়ির ভাড়াটিয়া ইউসুফ ও তার স্ত্রী জুলেখা আমার মাকে মেরে রক্তাক্ত করে দুটি দাতঁ ফেলে দেয় ও ঠোট ফাটিয়ে দেয়। আমার মায়ের ঠোটের ভিতরে মেরে অনেক যখম করেছে। সেখানে ঠোটের ভিতরে ৭টা সিলি লাগছে ঠোটের উপরে একটা সিলি লাগছে। আমি ইউসুফের বড় ভাই সোলেমানের কাছে বিচার দিতে গেলে সে বলে তোদের হাত পা ভেঙ্গে দেয় নাই তোদের কপাল ভালো এই কথা বলেই আমাকেও এলোপাতারে গুসি দেয়। আমি আমার মাকে যারা মেরেছে আমি তাদের বিচার চাই প্রশাসনের কাছে, প্রশাসন যেন এর সুষ্ঠ বিচার করে এটাই আশা করি। হাতিমাড়া তদন্ত কেন্দ্রের অফিসার ইনর্চাজ মো. রাজিব খান জানান, আমরা অভিযোগ নিয়েছি তদন্ত করে দোষীদের আইনের আওয়াতায় আনবো

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে