অপ-প্রচারের বিরুদ্ধে মুন্সীগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সংবাদ সম্মেলন

0
46
অপ-প্রচারের বিরুদ্ধে মুন্সীগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সংবাদ সম্মেলন

মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধিঃ অপ-প্রচারের বিরুদ্ধে মুন্সীগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সংবাদ সম্মেলন। মুন্সীগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোহাম্মদ মহিউদ্দিন ও সাধারণ সম্পাদক লুৎফর রহমান সহ নেতাদের বিরুদ্ধে অবৈধ অর্থ নেওয়ার অপ-প্রচারের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ ও সংবাদ সম্মেলন করেছে জেলা আওয়ামী লীগ। শুক্রবার বেলা ১১টায় মুন্সীগঞ্জ প্রেসক্লাবের সফিউদ্দিন মিলনায়তনে এ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সাধারণ সম্পাদক লুৎফর রহমান বলেন, মুক্তিযুদ্ধ করেছি, ছাত্রজীবন থেকে রাজনীতি করে এ পর্যন্ত এসেছি, কখনো কোন অন্যায়ে জড়িত হয়নি। কেউ প্রমান দিতে পারেনি, আমার কাছ থেকে ফায়দা না পাওয়ায় কুচক্রি মহল এই অপতৎপরতা চালিয়েছে। জেলা আওয়ামী লীগ এর তীব্র নিন্দা প্রকাশ করেছে। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এড.সোহানা মহিউদ্দিন বলেন, ঢাকায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে তথাকথিত কিছু লোক মানববন্ধন করে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোহাম্মদ মহিউদ্দিন সহ অন্যান্য নেতাদের বিরুদ্ধে কোটি টাকায় আওয়ামী লীগের পদ বিক্রির কথিত অভিযোগ তোলেছে, যা সম্পূর্নরুপে মিথ্যা ও বানোয়াট। মানববন্ধনে যারা অংশ নিয়েছে তারা মুন্সীগঞ্জের আওয়ামী লীগের কেউ নয়। এই মানববন্ধনের সংবাদটি বিভিন্ন পত্রিকা ও অনলাইনে সংবাদ প্রকাশ করে মূলত জেলা আওয়ামী লীগের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করার ষড়যন্ত্র করার পায়ঁতারা করা হচ্ছে। বিএনপি-জামাতের অনুপ্রবেশকারীদের দলে ঠাই না দেওয়ায় ভাড়া করা লোক দিয়ে মুন্সীগঞ্জ আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে অপ-প্রচার ও মানববন্ধন করেছে স্বার্থন্বেষী মহল। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে নিরপেক্ষভাবে কর্মীদের মূল্যায়ন করে জেলাব্যাপী ওয়ার্ড কমিটি গঠন করা হচ্ছে। কিন্তু জেলার কতিপয় স্বার্থান্বেষী নেতা বিএনপি-জামাতসহ বিভিন্ন দল থেকে অনুপ্রবেশকারীদের দলে ঠাই দিতে মরিয়া হয়ে উঠেছে। তাদের অপচেষ্টার বিরুদ্ধে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোহাম্মদ মহিউদ্দিনের নেতৃত্বে মনিটরিং কমিটি সক্রিয়ভাবে কাজ করছে। এতে স্বার্থান্বেষী মহলের অপতৎপরতা ব্যর্থ হওয়ায় তারা নতুন ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছে। এড. সোহানা তাহমিনা অভিযোগ করে বলেন, মানববন্ধনে অংশ নেওয়া লোকজন জেলার কোন নেতা নয় টোকাইদের ধরে এনে টাকা দিয়ে কথিত এ মানববন্ধন করেছে। এতে জেলা আওয়ামীলীগ কিংবা কোন ইউনিটের নেতাকর্মী ছিলো না। সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন সহ-সভাপতি শামসুল আলম সবজল, সহ-সভাপতি নূরুল আলম চৌধুরী, যুগ্ম সাধারণ সম্পদক এড. আবুল কাশেম, সাংগঠনিক সম্পাদক কামাল আহমেদ, তথ্য ও প্রযুক্তি সম্পাদক সালাউদ্দিন আহমেদ, সদর উপজেলা যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জামিল সিদ্দিক, রামপাল ইউনিয়ন সাধারণ সম্পাদক মোঃ আব্দুল হাকিম, শ্রমিক লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক আনোয়র হোসেন প্রমুখ। উল্লেখ্য, মুন্সীগঞ্জ জেলার তৃণমূল আওয়ামী লীগে নেতৃবৃন্দের ব্যানারে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে গত ৬ নভেম্বর জেলা আওয়ামী লীগের শীর্ষ নেতাদের বিরুদ্ধে কোটি টাকায় পদ পদবি বিক্রির অভিযোগ তুলে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়, এরপর যা বিভিন্ন অনলাইন ও জাতীয় পত্রিকায় সংবাদ হিসেব প্রকাশিত হয়।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে